যতদিন পর্যন্ত বিশ্বে সাইবা’র বু’লিং’র অভিযো’গ পাবো, যু’দ্ধ চা’লিয়ে যাবোঃ সাদাত

0
17
যতদিন পর্যন্ত বিশ্বে সাইবা'র বু'লিং'র অভিযো'গ পাবো, যু'দ্ধ চা'লিয়ে যাবোঃ সাদাত
যতদিন পর্যন্ত বিশ্বে সাইবা'র বু'লিং'র অভিযো'গ পাবো, যু'দ্ধ চা'লিয়ে যাবোঃ সাদাত

স্টাফ রিপোর্টার

সাইবা’র অ’পরা’ধ থেকে শি’শুদের সুর’ক্ষা নিয়ে কাজ করে সাদাত রহমান সাকিব শি’শুদের নোবেল খ্যাত আন্তর্জাতিক শি’শু শান্তি পুরস্কার জয় করে নড়াইলে ফিরে এক প্র’তিক্রি’য়ায় জানালেন, ‘ততদিন পর্যন্ত যু’দ্ধ চালিয়ে যাব যতদিন পর্যন্ত বিশ্বে সাইবার বু’লিং এর অভিযো’গ পাব’। কিভাবে ইন্টারনেটকে আরও নিরাপ’দ করা যায় এবং কিশো’রদের সম্পূর্ণ নিরা’পদ করা যায় সেজন্য সারা দেশের ৬৪টি জেলায় দ্রুত সা’ইবার টি’নস-এর এই অ্যাপ বিস্তা’রের চেষ্টা করবেন।

নড়াইলবাসীর পক্ষে সাদাতকে অভিনন্দন জানালেন এমপি মাশরাফী
নড়াইলবাসীর পক্ষে সাদাতকে অভিনন্দন জানালেন এমপি মাশরাফী

তিনি আশা করছেন, এটি পুরো বিশ্বের জন্য একটি মডেল হবে। আন্তর্জাতিক শি’শু শ’ন্তি পুরস্কারের সঙ্গে সম্মানির ১লাখ ইউরোর পুরো টাকা অ্যাপটির উন্নয়নে ব্যয় করা হবে বলে জানান। তার এ কাজে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা, জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা এবং পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম যথেষ্ট পরামর্শ এবং সাহায্য সহযোগিতা করেছেন। তাদের এই সাহায্য সহযোগিতা না পেলে এতো দূর আসতে পারতেন না। এছাড়া নড়াইলের মানুষ এবং গণমাধ্যম কর্মী তাকে বিভিন্ন সময় সহযোগিতা করেছে। এজন্য তিনি নড়াইলবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

শনিবার (২১ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় ঢাকা থেকে ফিরে প্রথমেই নড়াইল প্রেসক্লাবে আসেন এবং সেখানে এক তাৎক্ষনিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। এ সময় সাথে তার বাবা মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, মা মলিনা খাতুন, নড়াইল সিটি কলেজের অধ্যক্ষ মনির মল্লিক, নড়াইল প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ এনামুল কবির টুকু, সহ-সভাপতি সৈয়দ নাঈমুর রহমান পিরোজ, সাধারণ সম্পাদক শামীমূল ইসলাম টুলু, সিটি কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও সাংবাদিক মলয় নন্দী, সাদাতের হাতে গড়া নড়াইল ভলেন্টিয়ার্স এবং সাইবার টিনস-এর বন্ধুরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে তাকে নড়াইল প্রেসক্লাব এবং নড়াইল সিটি কলেজের পক্ষ থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান করা হয়।

সাদাত আন্তর্জাতিক শি'শুদের নোবেল পাওয়ায় নড়াইলে আনন্দের ব'ন্যা
সাদাত আন্তর্জাতিক শি’শুদের নোবেল বিজয়ী সাদাত

উল্লেখ্য, গত ১৩ নভেম্বর শি’শুদের র’ক্ষায় সচে’তনতামূলক অ্যাপ উদ্ভাবনের জন্য নেদারল্যান্ডসভিত্তিক ‘কি’ডস রা’ইটস ফাউন্ডেশন’ তাঁকে আন্তর্জাতিক শি’শু শান্তি পুরস্কার বিজয়ী ঘোষণা করে। এদিন নেদারল্যান্ডস এর হে’গে এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেন শান্তিতে নোবেল জয়ী মালালা ইউসুফ জাই।

নেদারল্যান্ডসে সাদাত রহমান সরাসরি উপস্থিত থেকে এই পুরস্কার গ্রহণ করেন । ৪২টি দেশের ১৪২জন শি’শুর মধ্যে নড়াইলের কিশোর সাদাত রহমান শি’শুদের অধিকার, উন্নয়ন ও নিরাপ’ত্তা র’ক্ষায় অসাধারণ অবদানের জন্য তিনি এ পুরস্কার পান।

নড়াইল আব্দুল হাই সিটি কলেজের মা’নবিক বিভাগের দ্বাদশ বর্ষের ছাত্র সাদাত রহমান সাকিব আরও জানান, ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে সে স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের নিয়ে সে’চ্ছাসেবী সংগঠন নড়াইল ভলেন্টিয়ার্স গ’ড়ে তো’লেন। প্রথম অ’ব’স্থায় বিভিন্ন সামাজিক এবং মা’নবিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করতেন। ২০১৯ সালের ৩০ আগস্ট পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ার সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছা’ত্রী রোকাইয়া রূপা সা’ইবার বু’লিং-এর শি’কার হয়ে আ’ত্মহন’নের পথ বেছে নেয়। বিষয়টি টেলিভিশন এবং বিভিন্ন পত্রিকায় দেখে আমাকে খুব না’ড়া দেয়, ভাবি এটা কেন ? তখন কিভাবে সা’ইবার বু’লিং-এর শি’কার হওয়া শি’শু-কিশো’রদের সাহায্য করা যায় সেই উপলব্ধি থেকে আমরা বন্ধুরা মিলে গত বছরের অক্টোবরে ছোট্ট অনলাইন প্লাটফরম ‘সাইবা’র টি’নস’ নামে মোবাইল অ্যাপ তৈরি করি। এ কাজে নড়াইলের এসপি মহোদয় অনেক সহযোগিতা করেছেন। প্রথমে কিশো’র-কিশো’রিদের মা’নসিক’ভাবেভাবে সা’পোর্ট দেওয়া হয়েছে, তাদের সাইবা’র এক্সপার্টদের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এছাড়া অনেক অ’পরা’ধিকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। ফলে অনেক কি’শোর-কিশো’রি এই সাইবার ক্রা’ইম থেকে মু’ক্তি পেয়েছে।

সাদাত জানায়, ‘কি’ডস রাই’টস ফাউন্ডেশন’ তার ভবিষ্যতের পড়াশোনার ব্যয়ভার গ্রহণ করতে চেয়েছে। ওয়ালটন কোম্পানি বাংলাদেশের আসার পর ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে ৫ লাখ টাকা প্রদান করেছে এবং এ কাজকে এগিয়ে নিতে যেকোনো সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দিয়েছে। ইউনিভারসিটি অব প্রোফেশনালসের ভাইস চ্যান্সেলর মেজর জেনারেল আতাউল হাকিম সরোয়ার হাসান উচ্চ শিক্ষা গ্রহণসহ এ কাজে সযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।

নড়াইল ভলেন্টিয়ার্স এবং সাইবা’র টি’নস-এর হেড অব ক্যাম্পেইন শফিকুল ইসলাম জানান, তাদের এই সাফল্য সারা দেশ এমনকি সারা বিশ্বে কাজ করার একটি সুযোগ তৈরি হলো। এই সাফল্য সামনের দিকে এগিয়ে যেতে অনেক অনুপ্রেরণা যোগাবে।

সাদাতের *মা মলিনা খাতুন বলেন, ছোট বেলা থেকেই লেখাপড়ার পাশাপাশি তার কম্পিউটার এবং সমাজ-সামাজিকার প্রতি ঝোঁ’ক ছিল। এসব কাজে আমরা কখনই তাকে বাঁ’ধা দেইনি। এখন সে দেশের সুনাম বয়ে এনেছে। আমাদের এ আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। আমরা খুবই আনন্দিত।

সাদাতের বা’বা ডেপুটি পোস্ট মাস্টার মোঃ সাখাওয়াত হোসেন জানান, মুজিববর্ষে বাংলাদেশ একটি বড় সাফল্য পেল। সাদাত বাংলাদেশকে বিশ্বের বু’কে তু’লে ধরেছে। দেশবাসীর সাদাতের প্রতি আন্তরিকতা দেখে আমি অভিভূত। বাংলাদেশ ডিজিটাল দেশ হিসেবে এগিয়ে যাচ্ছে সাদাত তার বাস্তব প্রমাণ। অন্য ত’রুণেরা তাকে এটি দেখে এগিয়ে আসবে।

জানা গেছে, বিভিন্ন সময় সংগঠনটির কর্মীরা শীতবস্ত্র বিতরণ,পরি’স্কার পরিচ্ছ’ন্নতা অভিযান, শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন ধরণের সেমিনার, পরিবে’শ সুর’ক্ষা, র’ক্তদা’ন কর্মসূচী, ই’ভটি’জিং ও বা’ল্যবি’বাহ রো’ধে বিভিন্ন প্রকার সচেতনতামূলক কর্মশালা এবং ভিডিও তৈরি, অসহা’য় পথ শি’শুদের নিয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠান এবং সহযোগিতাসহ সেবামূলক কাজ করে আসছে। এছাড়া করো’নাভাই’রাস প্রতিরোধে সংগঠনটি প্রথম থেকেই নড়াইলের পি’ছিয়ে প’ড়া জনগোষ্ঠী, শহরের বিভিন্ন মসজিদ, মন্দির ও গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি হ্যা’ন্ড ওয়া’শ স্থাপন করে সবার প্রশংসা কু’ড়ায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here