নড়াইলের লোহাগড়ায় অফিস সহকারীর ক্ষ*মতা কর্মকর্তার ও*পরে!

0
22
নড়াইলের লোহাগড়ায় অফিস সহকারীর ক্ষ*মতা কর্মকর্তার ও*পরে
নড়াইলের লোহাগড়ায় অফিস সহকারীর ক্ষ*মতা কর্মকর্তার ও*পরে

স্টাফ রিপোর্টার

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার (পিআইও) কার্যালয়ে কর্মরত অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক মো. মনিরুজ্জামানের বিরু*দ্ধে দায়িত্ব পালনকালে ক্ষ*মতার অ*প’ব্যবহার ও অনি*য়মের অভিযো*গ পাওয়া গেছে। তাঁর পদবি অফিস সহকারীর হলেও কর্মকর্তার ওপর ক্ষ*মতার প্র*ভাব ও ভ*য়ভী*তি দেখিয়ে নিজের ঠিকা*দারী প্রতিষ্ঠানের নামে কাজ করেন তিনি।

এ ব্যাপারে প্র*তিকার পেতে অতিসম্প্রতি লোহাগড়া উপজেলার পিআইও এস,এম.এ করিম নিজেই দু*র্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের নিকট লিখিত অ*ভিযোগ দা’য়ের করেছেন। অভিযো*গটি তদন্ত পূর্বক আগামী ২৪সেপ্টেম্বরের মধ্যে দু*র্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের প্রশাসনিক উপপরিচালক (প্রশাসন-২) ড. মো. হাবিব উল্লাহ বাহার তদ*ন্ত প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য নির্দেশক্রমে নড়াইল জেলা প্রশাসককে অনুরোধ করেছেন।

অভিযো*গপত্রে বলা হয়, লোহাগড়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয়ের কর্মরত অফিস সহকারী মোঃ মনিরুজ্জামান নিজ এলাকাতেই কর্মরত থাকায় কর্তব্যে খা*মখেয়া*লীপনা ও স্থানীয় প্র*ভাব খা*টিয়ে থাকেন। অফিসে আসা মানুষদের সঙ্গে প্রতিনিয়ত অশো*ভন আ*চরণ করে থাকেন। এছাড়া তিনি পে*শী শ*ক্তির প্রভা*ব খা*টিয়ে ভ*য়ভী*তি দেখিয়ে নিজের ঠিকা*দারী প্রতিষ্ঠানের নামে বিভিন্ন প্রকল্পের সভাপতির নাম ঠিক রেখে নিজেই কাজ করে অ*নৈ*তিকভাবে লা*ভবান হন।

এভাবে অফিস সহকারী মো.মনিরুজ্জামানের স্ব*জনপ্রী*তির লোকদের সঙ্গে নিজে কাজে জ*ড়িত থাকার নথিগুলো স্বাক্ষরের জন্য পিআইও’র নিকট উপস্থাপন করেন। নিয়*মবহি*র্ভূত ওই নথিগুলোতে সঠিকতার স্বাক্ষর না করলে পিআইও এস, এম. এ করিমের ওপর অফিস সহকারী স্থানীয় প্র*ভাবশা*লী লোকদের দিয়ে প্রভা*ব খা*টান।

অফিস সহকারী মো.মনিরুজ্জামানের এসব অ*পক*র্ম থেকে বির*ত থাকার কথা বললে তিনি পিআইও করিমের ওপর চ*ড়া হয়ে স্থানীয় লোকজনদের লে*লিয়ে দিয়ে অ*পমান ও লা*ঞ্ছিত করেছেন। এমনকি ধূ*র্ত অফিস সহকারী মনিরুজ্জামান উপজেলা কর্মচারী সমিতিকে ব্যবহার করে পিআইও’র বিরু*দ্ধে ষ*ড়য*ন্ত্র করেন। তিনি ইতিপূর্বে নড়াইল সদর উপজেলা পিআইও অফিসে ব*দলি হয়ে যান। ব*দলির অল্প কয়েকদিন পর প্র*ভাব খা*টিয়ে ত*দবীর করে পুনরায় নিজ উপজেলা লোহাগড়ায় ব*দলী হয়ে আসেন।

এ প্রসঙ্গে অভিযোগকারী লোহাগড়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এস,এম.এ করিম বলেন, ‘মো. মনিরুজ্জামান আমার অধী*নে কর্মচারী হলেও প্রভা*বশালী মহলের চা*পে তাঁর বিরু*দ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারিনি। তাঁর পদবি অফিস সহকারীর হলেও তাঁর ক্ষ*মতা আমারও ও*পরে। তিনি নিজ এলাকায় একই কর্মস্থলে দীর্ঘদিন কর্মরত থেকে পাহা*ড়সম অ*নিয়মে জ*র্জরিত হলেও তাঁর বিরু*দ্ধে কোনো কর্মকর্তা ব্যবস্থা নিতে পারেননি। যে কারণে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। তাঁর অ*নিয়মের তদ*ন্ত চলছে।’

একই বিষয় অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ‘আমি ষ*ড়য*ন্ত্রের শি*কার। আমার বিরু*দ্ধে আনীত অভিযো*গ মি*থ্যা ও ভিত্তিহী*ন। আমাকে অহে*তুক হ*য়রানি করার জন্য এসব মি*থ্যা অভিযো*গ আনা হয়েছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here