বিজয়ের পর ছুটে গেলেন প্রয়াত পুলিশ কর্মকর্তার নবজাতক শিশুকে দেখতে

13480
3916

এমএসএ

গত ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নড়াইল ২ আসনে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী হয়েছেন বাংলাদেশ ওয়ান ডে দলের অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। জয়ের পর ভুলে যাননি তার নির্বাচনী বহরে থাকা কর্তব্যরত মনির ভাই এর কথা। নির্বাচনী প্রচারণার নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন পুলিশ কর্মকর্তা এ এস আই মোঃ মনিরুজ্জামান। হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন তিনি। মনির ভাই এর লাশ দেখে শিশুর মত কেঁদেছিলেন মাশরাফী। একপর্যায়ে তো নির্বাচনের সকল কর্মসূচি বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছিলেন। এরপর নিজেকে কিছুটা সামলে নেন।

প্রয়াত পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুজ্জামানের সন্তানসম্ভবা স্ত্রীকে এক লক্ষ টাকার সহযোগিতা করেছেন মাশরাফীর স্ত্রী। নির্বাচনে ব্যস্ত থাকায় মাশরাফী যেতে পারেননি হাসপাতালে।

পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুজ্জামানের অকাল মৃত্যুর দুদিন পর গত ২৯ তারিখে তারিখে তার স্ত্রী কন্যা শিশুর জন্ম দেন। জাতীয় নির্বাচনের ব্যস্ততার কারণে প্রয়াত এএসআই এর স্ত্রী ও তার নবজাতক শিশুকে তৎক্ষনাত দেখতে আসতে পারেননি মাশরাফী। তবে সকল মহৎ ব্যক্তিগণই একই রকম চিন্তা করেন। ভুলে যাননি তার দায়িত্বের কথা। নিজ দায়িত্ব পালন করতে জীবন দিয়েছিলেন মাশরাফীর মনির ভাই। তার সন্তানকে দেখবেন না তা কি করে হয়? তাইতো বিজয়ের মাসে জয় অর্জনের পর গত সোমবার (৩১ ডিসেম্বর) শত ব্যস্ততা ঠেলে ছুটে গিয়েছিলেন প্রয়াত পুলিশ কর্মকর্তা মনিরের ফুটফুটে তনয়াকে দেখতে। সে মুহূর্তে তার সাথে উপস্থিত ছিলেন নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, পিপিএম। মাশরাফীর স্মৃতিতে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সকল মুহূর্তগুলোর মধ্যে প্রয়াত পুলিশ কর্মকর্তা মনির এক বিশেষ জায়গা নিয়ে থাকবেন।