চারণকবি বিজয় সরকারের ১২২তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন

0
11
চারণকবি বিজয় সরকারের ১২২তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন
চারণকবি বিজয় সরকারের ১২২তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন

স্টাফ রিপোর্টার

নড়াইলে চারণকবি বিজয় সরকারের ১২২তম জন্মবার্ষিকী পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকালে বিজয় সরকার জন্মজয়ন্তী উৎসব উদযাপন কমিটির আয়োজনে বিজয় সরকারের জন্মভূমি নড়াইল সদর উপজেলার ডুমদী গ্রামের নিজ বাসভবনে দিনব্যাপী উন্মুক্ত বিজয় গীতি পরিবেশনা,কবিগানের আসর ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে বিজয় সরকারের ১২২তম জন্মবার্ষিকী পালিত হয়।

এ সময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আশফাকুল হক চৌধুরী,পুলিশ সুপার মোহাঃ মেহেদী হাসান,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শাশ্বতী শীল,অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট লিংকন বিশ্বাস,টিটি কলেজ,যশোরের প্রফেসর নিখিল কুমার রায়,বীর মুক্তিযোদ্ধা শরীফ হুমায়ুন কবীর, সাইফুর রহমান হিলু, নড়াইল প্রেসক্লাবের সভাপতি এ্যাড. মোঃ আলমগীর সিদ্দিকী, সিটি কলেজ, নড়াইলের সহযোগী অধ্যাপক মলয় নন্দী,চারণকবি বিজয় সরকার ফাউন্ডেশনের যুগ্ম আহবায়ক,এস. এম. আকরাম শাহীদ চুন্নু,রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএইচডি গবেষক পুনম পিয়া বিশ্বাস,বাঁশগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যার রফিকুল ইসলামসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
চারণকবি বিজয় সরকার ১৯০৩ সালের ২০ ফেব্রুয়ারী নড়াইলের ডুমদি গ্রামে পিতা নবকৃষ্ণ অধিকারী ও মাতা হিমালয় অধিকারীর সংসারে জন্ম গ্রহন করেন। দশ ভাইবোনের মধ্যে বিজয় ছিলেন সবার ছোট। ১৯২৬ সালে স্থানীয় বাশগ্রাম হাইস্কুল থেকে তৎকালীন মেট্রিকুলেশন পাশ করে স্থানীয় ডুমদী প্রাইমারী স্কুলে শিক্ষকতা শুরু বিজয় সরকারে। ছাত্র অবস্থায় তিনি বিখ্যাত কবি ভুবন ঘোষের সান্নিধ্য লাভ করেন,এরপর অভিনেতা নেপালচন্দ্র বিশ্বাসের উৎসাহ পেয়ে নড়াইলের বিখ্যাত জমিদার মনীন্দ্র রায়ের যাত্রা দলে বিবেক চরিত্রে নিয়োজিত হন। বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক অরুনেশ্বর রায়ের কাছে রবীন্দ্র সঙ্গীতে তালিম নেন। প্রখ্যাত লোককবি মনোহর সরকারের কবিগানে আকৃষ্ট হয়ে তার কাছে কবিগানের দীক্ষা নেন । মাত্র ২১ বছর বয়সে তিনি পার্শ্ববর্তী সদানন্দ মল্লিক,রসিক মালাকার,নগেন মাষ্টার,পরান ঢুলি, ধীরেন্দ্রনাথ বিশ্বাস, বিমল বিশ্বাস, কলিকান্ত সিকদার, মুকুন্দ বিশ্বাস,জিতেন্দ্রনাথ বিশ্বাস,হাজারীলাল বিশ্বাস ও সতীশ শীল কে নিয়ে কবিগানের দল তৈরী করেন। ফরিদপুর জেলার বেন্নবাড়ি গ্রামে তার প্রথম কবিগানের আসর অনুষ্ঠিত হয়।

ফরিদপুর, বরিশাল, ঢাকাসহ ভারতের দিল্লী,উত্তর প্রদেশ,ওড়িশা, আন্দামান, ত্রিপুরা ও আসামের বাঙ্গালী বাসস্থানে তিনি কবিগান পরিবশেন করেন । তিনি একাধারে গানের রচয়িতা ও সুরকার। পোষা পাখি উড়ে যাবে সজনী/ একদিন ভাবি নাই মনে। এই পৃথিবী যেমন আছে/ তেমনি ঠিক রবে/ সুন্দর এই পৃথিবী ছেড়ে/ একদিন চলে যেতে হবে। তুমি জানো নারে প্রিয়/ তুমি মোর জীবনের সাধনা’-এ ধরনের অসংখ্য জনপ্রিয় গানের স্রষ্টা ছিলেন তিনি। দীর্ঘ সংগীত সাধনার জীবনে বিচ্ছেদগান, শোকগান, ইসলামীগান, আধ্যাত্নিক গান, দেশের গান, কীর্তন, ধর্মভক্তি, মরমী গান, বাউল, কৃঞ্চপ্রেম তিনি প্রায় দুই হাজার গান লিখেছেন।

চারণ কবি বিজয় সরকার ১৯৮৫ সালের ৪ ডিসেম্বর ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বেলুড়িয়া নামক স্থানে কন্যা বুলবুলির বাড়িতে মহান এই কবির দেহাবসান ঘটে । সেখানেই তাকে সমাহিত করা হয়। শিল্পকলায় বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ ২০১৩ সালে মরণোত্তর একুশে পদকে ভূষিত হন উপমহাদেশের প্রখ্যাত এই চারণ কবি।