লোহাগড়ায় গ্রাম্য কোন্দলের জেরে এক বেকারি মালিককে কু/পিয়ে ও পি/টিয়ে হ/ত্যা

0
18
লোহাগড়ায় গ্রাম্য কোন্দলের জেরে এক বেকারি মালিককে কু/পিয়ে ও পি/টিয়ে হ/ত্যা
লোহাগড়ায় গ্রাম্য কোন্দলের জেরে এক বেকারি মালিককে কু/পিয়ে ও পি/টিয়ে হ/ত্যা

স্টাফ রিপোর্টার

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার শালনগর ইউনিয়নের রামকান্তপুর গ্রামে গ্রাম্য আধিপত্যের জের ধরে আজিবর বিশ্বাস ওরফে আইজে বিশ্বাস (৩৫) নামে এক বেকারী মালিককে কু/পিয়ে ও পি/টিয়ে হ/ত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন। গতকাল বুধবার দুপুরে রামকান্তপুর গ্রামের সবুর মোল্যার ঘরের মধ্যে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত আজিবর বিশ্বাস উপজেলার লোহাগড়া গ্রামের গহর বিশ্বাসের ছেলে এবং রামকান্ত গ্রামের চন্ঠু মোল্যার জামাই। সে দীর্ঘদিন রামকান্তপুর গ্রামে শ্বশুর বাড়ি এলাকায় বসবাস করতো এবং লোহাগড়া বাজারে তার বেকারি ব্যবসা রয়েছে।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ও রামকান্তপুর গ্রামের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান লাবু মিয়ার সমর্থক আজিবর বিশ্বাসের সাথে সাবেক চেয়ারম্যান তসলু খানের সমর্থক মিঠু সরদারের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই মধ্যে গত কয়েকদিন আগে এলাকায় একটি স্যালো ম্যাশিন চুরি হয়। প্রতিপক্ষ মিঠু সরদার আজিবরকে দোষারোপ করে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়।

এ ঘটনায় আজিবর ক্ষিপ্ত হয়ে মিঠুকে মারপিট করে। মিঠু আজিবরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করে। আজিবর ওই মামলায় কয়েকদিন হাজতবাস করে জামিনে মুক্তি পেয়ে গত রবিবার বাড়ী আসে। বুধবার দুপুরে আজিবর স্থানীয় শিয়রবর হাট থেকে ভ্যানযোগে বাড়ী ফেরার পথে রামকান্তপুর গ্রামের সবুর মোল্যার বাড়ী কাছে পৌছালে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা মিঠু সরদারের নেতৃত্বে ১০/১২ জন লোক তাকে হামলা করে।

এ সময় আজিবর প্রান ভয়ে দৌড়ে স্থানীয় সবুর মোল্যার ঘরের মধ্যে আশ্রয় নেয়। হামলাকারীরা ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে আজিবরকে এলোপা/তাড়িভাবে পি/টিয়ে ও কু/পিয়ে গুরুতর জখম করে। এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে লোহাগড়া হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ আবু হেনা মিলন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।