কুরবানীর হাটে ভোক্তা অধিদপ্তর, ১৩২ টি প্রতিষ্ঠানকে ৭ লক্ষ ৪৯ হাজার টাকা জরিমানা

0
12
কুরবানীর হাটে ভোক্তা অধিদপ্তর, ১৩২ টি প্রতিষ্ঠানকে ৭ লক্ষ ৪৯ হাজার টাকা জরিমানা
কুরবানীর হাটে ভোক্তা অধিদপ্তর, ১৩২ টি প্রতিষ্ঠানকে ৭ লক্ষ ৪৯ হাজার টাকা জরিমানা

স্টাফ রিপোর্টার

বৈশ্বিক মহামা’রী করোনা ভাইরাসের উদ্ভূত পরিস্থিতি ও আসন্ন ঈদ উপলক্ষে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল ও সহনীয় রাখাসহ নকল ও ভেজা*ল প্রতিরো*ধ এবং কোরবা*নির প*শুর চাম*ড়া যথাযথভাবে সংরক্ষণ ও ন্যায্যমূল্যে চাম*ড়া ক্রয় বিক্রয়ের জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়াধীন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কর্তৃক ঢাকাসহ সারাদেশে বাজার তদারকিমূলক কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার স্থিতিশীল রাখতে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার সাহা এর প্রত্যক্ষ নির্দেশনায় বুধবার (২৯ জুলাই) ঢাকাসহ সারাদেশে ৮৯টি বাজারে (পাইকারি ও খুচরা) তদারকিমূলক অভিযান পরিচালনা ক‌রে পণ্যের মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা, অধিকমূল্যে পণ্য/ঔ*ষধ বিক্রয় করা, মেয়াদো*ত্তীর্ণ ও নকল পণ্য/ঔষ*ধ বিক্রি করাসহ ভোক্তাস্বা*র্থ বিরো*ধী বিভিন্ন অপ*রাধে প্রশাসনিক ব্যবস্থায় ১৩২টি প্রতিষ্ঠানকে সর্বমোট সর্বমোট ৭ লক্ষ ৪৯ হাজার টাকা জ‌রিমানা করা হয়।

পরিচালক (কার্যক্রম) মহোদয়ের সার্বিক তত্বাবধানে ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করেন প্রধান কার্যালয়ের উপপরিচালক মোঃ মাসুম আরেফিন, বিকাশ চন্দ্র দাস ও ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক রোজিনা সুলতানা এবং ঢাকা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মন্ডল ও ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক রোজিনা সুলতানা, মাগফুর রহমান, মাহমুদা আক্তার।

“জাতীয় সম্পদ চাম*ড়া, রক্ষা করব আমরা” স্লোগানকে সামনে রেখে সাভার ট্যা*নারী শিল্প নগরী ও গাবতলী কুর*বানী প*শুর হাটে দিনব্যাপী সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। এ সময় কু*রবানীর প*শুর চাম*ড়া যথাযথ প্রক্রিয়ায় সংরক্ষণ করা এবং সরকার কর্তৃক নির্ধারিত মূল্যে তা ক্রয় বিক্রয় নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জরুরি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। হ্যান্ডমাইকে ব্যাপকভাবে প্রচারসহ বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক সরবরাহকৃত সচেতনতামূলক লিফলেট উপস্থিত ক্রেতা-বিক্রেতার মাঝে বিতরণ করা হয়।

এছাড়া ঢাকার বাইরে ৪৩ জন কর্মকর্তা বিভাগে উপপরিচালক ও জেলায় সহকারী পরিচালকগণের নেতৃত্বে বাজার অভিযান পরিচালিত হয়। এছাড়া টিসিবির ন্যায্য মূল্যের ট্রাকসেল তদারকি করা হয়।

এ প্রসঙ্গে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জনাব বাবলু কুমার সাহা আসন্ন ঈদে সঠিক পদ্ধতিতে কো*রবানির প*শুর চাম*ড়া ছাড়ানো ও সংরক্ষণ করতে এবং সরকার নির্ধারিত মূল্যে চাম*ড়া ক্রয় বিক্রয় করতে সংশ্লিষ্ট সকল অংশীজনকে আহবান জানান।

এছাড়াও ঈদকে সামনে রেখে মসলাজাতীয় পণ্যসহ সকল ধরনের নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য, কসমেটিকস ও ঔষ*ধ যৌক্তিক মূল্যে বিক্রয় করার জন্য ও ভোক্তাস্বার্থ সংরক্ষণে ভোক্তা অধিকার বিরো*ধী কার্য করা হতে বিরত থাকতে সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ করেন। করোনা পরিস্থিতিতে দেশের সকল কোর*বানির প*শুর হাটে ভোক্তা সাধারণ ও ব্যবসায়ীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাজারে পশু ক্রয় বিক্রয়ের উদাত্ত আহ্বান জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here