“সালমানদের” বিরুদ্ধে আইসিটি মন্ত্রীর যুদ্ধ ঘোষণা

9
25

নিউজ ডেস্ক

বাংলাদেশের অন্যতম ইউটিউবার সালমান মুক্তাদির ও তার অনুসারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি (আইসিটি) মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। সোমবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক এ্যাকাউন্ট থেকে সালমান মুক্তাদিরের অবস্থান জানতে একটি স্ট্যাটাস দেন তিনি।

স্ট্যাটাসে মন্ত্রী লেখেন, ‘কেউ কি সালমান মুক্তাদিরের আজকের অবস্থা জানাতে পারবেন?’ এরপর ফেসবুকে তার স্ট্যাটাসের নিচে কমেন্টের ঝড় ওঠে।

পলাশ কমেন্টে লেখেন, “সালমান মুক্তাদির একটা অসভ্য ছেলে। ওর সাথে যে কজন আছে, আসিফ বিন আজাদ, সৌভিক নাকি আরো কে কে। এগুলো সবগুলোই অশ্লীলতার দায়ে জেলে যাওয়ার যোগ্য। ভাদাইম্মা নামে টাঙ্গাইলের এক ছেলে অশ্লীল ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে দেয়। এগুলোও বন্ধ হওয়া উচিৎ।”

মাইনুল লেখেন, “স্যালুট ইউ স্যার মোস্তাফা জব্বার। তবে তার ফেসবুক এবং ইউটিউব আইডি বন্ধ হলে নর্দমার এই কীটের শিক্ষাটা শতভাগ ফলপ্রসু হত। এবং ধিক্কার জানাই ঐসব হলুদ মিডিয়াকে যারা এইসব অর্বাচীনদের বাছ বিচার না করেই প্রমোট করে রাতারাতি সেলিব্রেটি বানায়া দেয়।”

রুমেল কমেন্ট করেন, “স্যার আপনার মত একজন আইসিটি মন্ত্রী পেয়ে আমরা সত্যিই উপকৃত ও ধন্য। অধুনিকতার বেশধারী সালমান মুক্তাদির ও তার গ্রুপের সকল কুলাঙ্গারদের আউট করতে আপনিই পারবেন। এরা আমাদের এত সুন্দর দেশটাকে অসুন্দর দিয়ে ভরিয়ে তুলতে চায়। ডিজিটালাইজেশনের অপব্যবহার এর জন্য এরাই দায়ী। নিরাপদ ইন্টারনেটের জগত তৈরিতে আপনারা যে যুদ্ধ শুরু করেছেন সেই যুদ্ধে আমাদের মত এমন লাখো কর্মীকে পাশে পাবেন। সত্য ও সুন্দরের এই যুদ্ধে আমাদের জয় হবেই হবে কেননা আমাদের সাথে আছে দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার মত এমন দরদী একজন প্রধানমন্ত্রী।”

সূত্রে জানা যায়, সালমান সম্পর্কে গণমাধ্যমকে মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ‘আমি সালমানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করছি, এটা আমি করতেছি।’ এদিকে মন্ত্রীর ওই স্ট্যাটাসের পর ইউটিউবে সালমান মুক্তাদিরের প্রকাশিত সর্বশেষ বিতর্কিত ভিডিও ‘অভদ্র প্রেম’র মিউজিক ভিডিও সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

মন্ত্রীর এই পদক্ষেপকে সাধুবাদ জানিয়ে কান্তি তরফদার লেখেন, ইহা এক অসাধারণ যুদ্ধ। অন্তর্জালের যুদ্ধ, অশ্লীলতার বিরুদ্ধে যুদ্ধ। পুরাদস্তুর শান্তিকামী হইয়াও এ যুদ্ধকে দ্বিধাহীন চিত্তে সমর্থন করিতেছি। ইহারপর ডিপজলের কুরুচিপূর্ণ সংলাপগুলিকে তরুণ সমাজের প্রিয় বচনে পরিণত করা ট্রলবাজদের বিরুদ্ধেও সমরের আহ্বান করিতেছি। সেই সাথে গুণী ব্যক্তিদের লইয়া অবান্তর ‘সার্কাইজম’ করা পেজগুলিকেও গুঁড়াইয়া দিবার আর্জি জানাইতেছি।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি সালমান মুক্তাদির তার ইউটিউব চ্যানেলে ‘অভদ্র প্রেম’ টাইটেলে একটি গান প্রকাশ করে সমালোচনার মুখে পড়েন। গানটিতে ৪০ হাজারের বেশি লাইক পড়লেও, ডিজলাইক ২ লাখ ছাড়ায়। অশ্লীল ও বিতর্কিত গানটির জন্য ইউটিউব চ্যানেলকে আনসাবস্ক্রাইব করে চ্যানেল ছাড়ে অসংখ্য ভক্ত।

উল্লেখ্য, সোমবার ১৫৬৩৬টি পর্নো ও ২২৩৫টি জুয়ার সাইটসহ টিকটক ও বিগো বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন আইসিটি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার।