নড়াইলের লোহাগড়ার পৌর এলাকায় ঢিলেঢালা ভাবে চলছে লকডাউন

0
24
দক্ষিণ নড়াইল লকডাউনের খবর গুজব
করোনা ভাইরাস, জনসাধারণের করণীয়

স্টাফ রিপোর্টার

উপজেলা প্রশাসন ও পৌর প্রশাসনের মধ্যে সম্বনয় না থাকায় ঢিলেঢালা ভাবে চলছে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার পৌর এলাকার লকডাউন। অপরদিকে ক্রমশ বাড়ছে করোনা রো*গীর সংখ্যা। লোহাগড়ার পৌর এলাকায় করোনা ভাইরাস ক্রমর্বদ্ধমান হারে বৃদ্ধির কারণে করোনা ভাইরাস সংক্রমন রো’ধ কল্পে উপজেলা প্রশাসন ২৬ জুন পৌর এলাকায় লকডাউন ঘোষণা করে।

লকডাউন ঘোষণার পরেও দিন দিন করোনার শনাক্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। করোনা বৃদ্ধির কারণ সর্ম্পকে লোহাগড়া উপজেলা স্বা’স্থ্য পরিবার পরিকল্পনা মেডিকেল অফিসার ও উপজেলা করোনা সম্বনয়কারী ডাঃ সাহাবুবুর রহমান বলেন, পৌর এলাকার লক ডাউন একটু ক’ড়াক’ড়ি করতে হবে। অন্যথায় এ সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না। কারণ হালকা ভাবে লকডাউন চললে জনসমাগম বেশী হবে। আর জনসমাগম বেশী হলেই করোনা সংক্রমণ বেশী হবে। এ জন্যই লকডাউন ক’ড়াক’ড়ি ভাবে করতে হবে।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, নড়াইলে রবিবার ০৫ জুলাই গত ২৪ ঘন্টায় নতুন ১৮জন সহ জেলায় মোট ২৭৫জন করোনা রো*গী শনাক্ত হয়েছে। আক্রা’ন্তদের নিজ নিজ বাসায় আইসো*লেশনে রাখা হয়েছে এবং তারা সুস্থ্য আছেন। নতুন শনাক্ত ১৮জনের মধ্যে ১৪জনই লোহাগড়া উপজেলার। আবার ১৪জনের মধ্যে ১০জনই লোহাগড়া পৌর এলাকায়।

জেলায় মোট শনাক্তের ২৭৫জনের মধ্যে লোহাগড়া উপজেলায় শনাক্ত ১৫৭জন। ১৫৭ জনের মধ্যে ৯৭ জনই লোহাগড়া পৌর এলাকায়। অথচ ২৬ জুন লকডাউন ঘোষণার সময় এ সংখ্যা ছিল ৪০জন। নড়াইল জেলায় এ পর্যন্ত ১৬জন হাইওয়ে পুলিশ সদস্য ও ১০জন চিকিৎসকসহ সর্বমোট ২৭৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ১০ চিকিৎসকসহ ৮৮ জন ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন এবং ৭জন মা*রা গেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here