নড়াইলে নলদী বিএসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান

0
62
নড়াইলে নলদী বিএসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান
নড়াইলে নলদী বিএসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান

স্টাফ রিপোর্টার

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার নলদী ব্রাহ্মণডাঙ্গা শ্যামাসূন্দরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দুদিনব্যাপী শতবর্ষ পূতি উৎসব শুরু হয়েছে। বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) সকালে ‘নবীন-প্রবীণ মিলন মেলায়, চল ফিরে যাই ছোটবেলায়’ এই শ্লোগানকে ধারণ করে শতবর্ষপূতি অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার)।

এসময় ছিলেন নলদী ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ পাখি, প্রধান শিক্ষক মোঃ আক্কাচ হোসেন মোল্যা, শতবর্ষ উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব এ্যাডভোকেট মোস্তফা হুমায়ুন কবির সহ বিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধন শেষে এ উপলক্ষে বিদ্যালয় চত্বর থেকে একটি বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি স্থানীয় নলদী বাজার সহ বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একইস্থানে এসে শেষ হয়। কর্মসূচিতে বিদ্যালয়ের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষক- শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

বিকেলে প্রাক্তন শিক্ষকদের সম্মানা ও আলোচনা সভায় শতবর্ষ উদযাপন পর্ষদের আহবায়ক ও নলদী বিএসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাতি মোঃ আব্দুল ওহাব মোল্যার সভাতিত্বে স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য দেন প্রধান অতিথি স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি, বিশেষ অতিথি নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য ক্রিকেট তারকা মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা (ভিডিও কলের মাধ্যমে), বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ যশোর জেলা শাখা ও খুলনা বিভাগীয় সাধারণ সম্পাদক তন্দ্রা ভট্টাচার্য্য, নড়াইল জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, নড়াইলের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) কাজী মাহবুবুর রশীদ, নড়াইল পৌরসভার মেয়র জাহাঙ্গীর বিশ্বাস, সহকারী পুলিশ সুপার (প্রভেশনাল) মোঃ রায়হান উদ্দিন মুরাদ, লোহাগড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুকুল কুমার মৈত্র, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শেখ মোঃ নূরুজ্জামান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট তারিকুল ইসলাম. ছাত্রনেতা সোহেল রানা প্রমুখ।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে খুব অল্প সময়ের মধ্যে অভুত উন্নতি হয়েছে। এবাবের নির্বাচনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর যে অঙ্গীকার ও যে ইস্তেহার ঘোষণা করেছিলেন, সেখানে বলা হয়েছে গ্রামকে শহরের কাছে নিয়ে যাওয়া হবে। সে লক্ষ্যে এবারের বাজেটে সবচেয়ে বেশি বাজেট রেখেছেন, যোগাযোগ ব্যাবস্থা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, নদীখনন , ব্রীজসহ যাতে মানুষ গ্রামে থেকে কর্মসংস্থান করতে পারে। সে লক্ষ্যে নানা পরিকল্পনা গ্রহ। করা হচ্ছে। ৫শ ২৩ কোটি ২৩ লক্ষ টাকার যে বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। বাজেটের এ টাকা পরিপূর্ণভাবে ব্যয় করতে পারলে আপনাদের এলাকার যে চাহিদা তা পুরণ হবে।

তিনি আরো বলেন, ‘ আপনারা নিশ্চিত থাকবেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর হাতে দেশ নিরাপদ। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার হাতে এই বাংলাদেশে যে গতিতে উন্নয়ন চলছে। এটি আরো বেগবান হবে আগামীতে। কাজেই আপনাদের হতাশ হবার কোন কারণ নেই।’

তিনি নলদীসহ নড়াইল জেলার উন্নয়নের জন্য আন্তরিকতার কাজ করার সদিচ্ছা প্রকাশ করে বলেন, ‘নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার সাথে আমার কয়েকবার কথা হয়েছে। এই এলাকার যে সংকট আছে আমি তা যথাসাধ্য পুরণ করার চেষ্টা করবো।’

প্রথমদিন ক্রীড়া উৎসব. মোমবাতি প্রজ্জ্বলন ও রাতে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দর্শকদের মুগ্ধ করে তোলে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান পরিবশেন করেন ফকির শাহাবুদ্দিন।

দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবারের অনুষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে ক্রীড়া উৎসব, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, বার্ষিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ ও ডাঃ সোহানী ট্রাষ্টের বৃত্তি প্রদান, সততা সংঘের সমাবেশ, আলোচনা সভা, প্রবীণ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতকি অনুষ্ঠান। বৃত্তিপ্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন সোহানী ট্রাষ্টের প্রতিষ্ঠাতা ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট সৈয়দ রেজাউর রহমান এবং বিকালে সততা সমাবেশ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন দুর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার (তদন্ত) এএফএম আমিনুল ইসলাম।

এদিকে শতবর্ষ পূতি অনুষ্ঠানকে ঘিরে প্রাক্তন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের এক মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে। দীর্ঘকাল পর প্রিয় শিক্ষক, সহপাঠী ও বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রিয় শিক্ষাঙ্গনে পেয়ে অনেকেই আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। সব মিলিয়ে এক মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে। উল্লেখ্য যে, ১৯১৬ সালে নলদী ব্রাহ্মণডাঙ্গা শ্যামাসুন্দরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে পার্শ্ববর্তী ২০টি গ্রামে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে যাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here