দেশ চালাতে যোগ্য লোকবলের বিকল্প নেইঃ বিইউবিটিতে ডেপুটি স্পিকার

4
10

স্টাফ রিপোর্টার

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি এর ডিবেটিং ক্লাব অব বিইউবিটি কর্তৃক আয়োজিত তিন দিনব্যাপী “৩য় বিইউবিটি আন্তঃবিভাগ বিতর্ক প্রতিযোগিতা- ২০১৯” এর চূড়ান্ত বিতর্ক ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের মাননীয় ডেপুটি স্পিকার জনাব মোঃ ফজলে রাব্বি মিয়া। এছাড়া বিশেষ অতিথির আসন অলংকৃত করে মূল্যবান বক্তব্য প্রদান করেন বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ জামাতা ও বিইউবিটি ট্রাস্টের সম্মানিত চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. শফিক আহমেদ সিদ্দিক। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিইউবিটি’র সম্মানিত ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা ও শিক্ষা সহায়ক কার্যক্রমের প্রধান সমন্বয়ক প্রফেসর মিঞা লুৎফার রহমান। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর মোঃ আবু সালেহ। এছাড়া চূড়ান্ত বিতর্ক ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ডিবেটিং ক্লাবের মডারেটর সহকারী অধ্যাপক মোঃ সাব্বির আহমেদ।

ডেপুটি স্পিকার মোঃ ফজলে রাব্বি মিয়া বলেন, দেশের উন্নয়নে যোগ্য লোকবল তৈরি করতে হলে মানসম্মত উচ্চশিক্ষা ব্যবস্থার প্রয়োজন রয়েছে। তিনি বলেন, দেশ চালাতে যোগ্য লোকবলের বিকল্প নেই। শিক্ষার মাধ্যমে দেশপ্রেমিক ও সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠলে শিক্ষার্থীরা ভবিষ্যতে দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়ায় ভূমিকা রাখবে। তিনি আরো বলেন, ‘বর্তমান সরকার দুর্নীতি দমনে আন্তরিক। দুর্নীতি অবশ্যই বন্ধ হতে হবে। দুর্নীতিবাজদের খুঁটির জোর কার কতটুকু সরকার তার তোয়াক্কা করছে না।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিইউবিটি ট্রাস্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডঃ শফিক আহমেদ সিদ্দিক বলেন, ‘কালো টাকা কখনোই সাদা করা যায় না। স্মাগলিং, ডাকাতির টাকা হলো অপ্রদর্শিত টাকা। এটাকায় ট্যাক্স দেয়া যায় না। সরকারের উচিত কালো টাকার ক্ষেত্রে ‘অপ্রদর্শিত অর্থ’ শব্দটি ব্যবহার করা।’ অনুষ্ঠানের সভাপতি উপাচার্য বলেন, শুধু পুঁথিগত বিদ্যা দিয়ে সব কিছু অর্জন করা যায় না। দক্ষ ও যোগ্য করে নিজেকে প্রস্তুত করলে তারুণ্যের শক্তির কাছে জঙ্গিবাদ ও মাদক, সন্ত্রাস ও দুর্নীতি কিছুই টিকতে পারে না।

রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত বিইউবিটির স্থায়ী ক্যাম্পাসের আন্তর্জাতিক কনফারেন্সে হলে অনুষ্ঠিত এই চূড়ান্ত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় “বর্তমান সরকার দুর্নীতি দমনে অনমনীয়” শীর্ষক প্রস্তাবে বিইউবিটি’র আইন বিভাগ ও ব্যবসায় প্রশাসন যথাক্রমে সরকারি দল ও বিরোধী দলের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়। প্রতিযোগিতায় সরকারি দল ‘হ্যাঁ’ জয়যুক্ত হলে অনুষ্ঠানে বিজয়ী ও রানার্সআপ শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ। উল্লেখ্য, গত ৬ জুলাই থেকে “চিত্তে যেথা ভয় শূন্য, উচ্চ সেথা শির” প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে “বিইউবিটি আন্তঃবিভাগ বিতর্ক কর্মশালা ও প্রতিযোগিতা- ২০১৯” শুরু হয়। কর্মশালা শেষে ১১টি বিভাগের ৫৯৩ জন প্রতিযোগী বারোয়ারী বিতর্কে অংশগ্রহণ করেন। এরপর সেরাদের নিয়ে দল গঠন করা হয়।

4 COMMENTS

  1. After research a couple of of the weblog posts on your web site now, and I truly like your approach of blogging. I bookmarked it to my bookmark website listing and will be checking again soon. Pls check out my website online as effectively and let me know what you think.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here